Post Budget Review Session: Issues of Disaster Management & Relief

ত্রান সহায়তার পাশাপাশি সমান জরুরী দুর্যোগ মোকাবেলা ও ব্যবস্থাপনায় সক্ষমতা বৃদ্ধি”

প্রেস বিজ্ঞপ্তি, ১৮ জুন, ২০১৪; ঢাকাঃ ত্রান সহায়তার পাশাপাশি দুর্যোগ মোকাবেলা, ঝুঁকি নিরসন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সক্ষম প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো ও জনদক্ষতা বৃদ্ধি করা আবশ্যক।– গত ১৮ জুন, ২০১৪ তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে আয়োজিত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বাজেট বরাদ্দ বিষয়ে এক বাজেট-উত্তর আলোচনা সভায় বক্তারা এ মতামত তুলে ধরেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষনা সংস্থা সেন্টার অন বাজেট এন্ড পলিসি এবং দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল; বিশেষ অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রনালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মাননীয় সংসদ সদস্য ড. মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক।

সভায় স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক একটি দুর্যোগ প্রবন দেশ হিসেবে টেকসই উন্নয়ন তথা অর্থনীতিক উন্নয়নে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে যথাযথ অর্থায়নের মাধ্যমে প্রক্রিয়াগত ও অবকাঠামোগত উন্নতির প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করেন।সেই সাথে তিনি দক্ষিন এশীয় অঞ্চলের প্রায় সমজাতীয় দুর্যোগ ঝুঁকি সম্পন্ন দেশ সমূহ কে সংগঠিত করে ভূ-আঞ্চলিক পর্যায়ে দুর্যগ ব্যবস্থাপনায় যৌথ সমন্বিত কৌশল প্রনয়নে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহনের আহবান জানান।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার অন বাজেট এন্ড পলিসির ডিরেক্টর প্রফেসর ড এম আবু ইউসুফ ও দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর আ স ম মাকসুদ কামাল। তাদের উপস্থাপনায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে বিগত পাঁচ অর্থবছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে বাজেট বরাদ্দ বিশ্লেষন করা হয়। সেই সাথে জলবায়ু অভিঘাত মোকাবেলায় গৃহীত বিভিন্ন প্রকল্পে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাত কে কিভাবে সমন্বয় করা হয় তাদের বক্তব্যে সে বিষয়টিও উঠে আসে।প্রফেসর আবু ইউসুফ সার্কভূক্ত দেশ সমূহের মাঝে নেপাল ও শ্রীলংকার সাথে তুলনা করে দেখান যে বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে অর্থায়ন প্রক্রিয়াটি চাহিদা ও গুরুত্বের তুলনায় অপ্রতুল এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত জাতীয় নীতি ও কৌশল্গত লক্ষ্যসমূহের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।তিনি বাজেটের অন্তত ৫ শতাংশ ও জিডিপির অন্তত এক শতাংশ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে ব্যয় করার আহবান জানান। প্রফেসর মাক্’সুদ কামাল দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাঠামোর উন্নয়নকল্পে করনীয় কৌশল হিসেবে আঞ্চলিক দুর্যোগ বাজেট বরাদ্দ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে গবেষনা বৃদ্ধি, ঝুঁকি পূর্ন জনগোষ্ঠীর কাছে সহায়তা প্রদান ব্যবস্থা আরো দ্রুততর করন, যোগাযোগ কাঠামোর উন্নয়ন, প্রশিক্ষন এর সুযোগ সৃষ্টি, আশ্রয়কেন্দ্র নির্মান, জরুরী সহায়তা প্রদানের অবকাঠামো উন্নয়ন, নারী বান্ধব দুর্যোগ মোকাবেলা কৌশল প্রনয়ন এবং সর্বোপরি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন প্রয়োগ এর সুপারিশ করেন।

সভায় আলোচক হিসেবে উপস্থিত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান জনাব মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াজেদ, সিডিএমপি প্রকল্পের পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল কাইয়ুম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড তৈয়বুর রহমান ও ড কাজী মারুফুল ইসলাম উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ও দাতা দেশ সমূহের যৌথ উদ্যোগে কোন প্রকল্প গ্রহনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জনগনের প্রয়োজন অনুযায়ী, বাংলাদেশের পরিবেশ উপযোগী পদক্ষেপ গ্রহন ও সকল পর্যায়ে জনগনের স্বার্থ চূড়ান্ত ভাবে সংরক্ষন করার কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ড মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক সম্পদের অপ্রতুলতা থাকলেও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা খাতে বাংলাদেশ সরকার যে অত্যন্ত আন্তরিক ভাবে টেকসই উন্নয়ন সাধনের চেষ্টা করছে এবং আর্থ-সামাজিক, ভৌগলিক অবস্থান বিবেচনায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয়,খাদ্য মন্ত্রনালয়, সামাজিক নিরাপত্তা বাজেট ইত্যাদিতে খাতেও দুর্যোগ ঝুঁকি নিরসন ও দুর্যোগ আক্রান্ত জনগনের পুনর্বাসন কে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার মৌলিক নীতির এক্তি হিসেবে রাখা হয়েছে ব্’লে জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল এ পর্যন্ত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সরকারে এ যাবৎ অর্জিত সাফল্য এবং কোন কোন ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা রয়েছে তা সংক্ষেপে তুলে ধরেন। তিনি পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা, জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা ও সমন্বিত দুর্যোগ মোকাবেলা প্রকল্পের সাথে সমন্বয় করে দুর্যোগজনিত ঝুঁকি ও বিপর্যয় মোকাবেলার কৌশল ও করনীয় সমূহের সমন্বয় সাধন করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানান এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সর্বস্তরের জনগনের সচেতনতা ও অংশগ্রহন্’মূলক ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

সভার চেয়ারম্যান প্রফেসর আ স ম মাকসুদ কামাল সভায় আগত সকল অতিথিকে ধন্যবাদ জানিয়ে যে উদ্দেশ্যে এই সভা আয়োজন করা হয়েছে নীতি নির্ধারনী পর্যায়ে তা প্রতিফলিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবু ইউসুফ

পরিচালক, সেন্টার অন বাজেট এন্ড পলিসি ও

প্রফেসর, উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগ,

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

 

প্রফেসর আ স ম মাকসুদ কামাল

চেয়ারম্যান, দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগ;

ডীন, আর্থ এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস;

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।